Tuesday, 19 September 2017
ইভেন্ট হেডলাইন
×

Warning

Error loading component: com_languages, Component not found.

নদ-নদীরক্ষায় বিটিভিঃ রোববার ‘নোঙর’ এর ৪০তম পর্ব

0
0
0
s2smodern
powered by social2s

দেশের নদ-নদীরক্ষায় ব্যাপক জনসচেতনতা গড়তে তথ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগের অংশ হিসেবে নির্মিত ধারাবাহিক প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘নোঙর’ এর ৪০তম পর্ব ১৪ মে, রোববার বিকেল ৫:৩০টায় বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে একযোগে সম্প্রচারিত হবে ।

এবারের পর্ব চট্টগ্রামের শঙ্খ নদী নিয়ে। মিয়ানমারের আরাকানের মদক পাহাড় থেকে নেমে এসে বাশঁখালি ও আনোয়ারার মাঝখান দিয়ে প্রবাহিত শঙ্খ নদী কিভাবে তার দু’কূলের জীবনযাত্রাকে প্রভাবিত করছে, তা দেখানো হবে এতে।

বাংলাদেশ টেলিভিশনের নিয়মিত ধারাবাহিক হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয় ‘নোঙর’ প্রতিমাসের দ্বিতীয় ও চতুর্থ রোববার বিকেল ৫:৩০টায় বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচারিত হয়। নদী গবেষক সুমন শামসের গ্রন্থনা ও উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটিতে মন্ত্রী, সচিব, নদী ও পরিবেশ বিশেষজ্ঞ, সরকারি কর্মচারি  ছাড়াও নদীসংলগ্ন এলাকাবাসী ও নদীর সাথে নানা বন্ধনে জড়িয়ে থাকা মানুষের প্রাণবন্ত মতামত ও সত্যিকারের নদীচিত্র ফুটে ওঠে ।

রোববারের পর্ব সম্পর্কে প্রামাণ্যটির নির্মাতা সুমন শামস জানান, শঙ্খ নদীর ওপর সেতু নির্মাণের দাবি, তীরে নির্মীয়মাণ বেড়িবাঁধ, ঘূর্ণিঝড়-জলোচ্ছ্বাসের বৈরিতাসহ প্রতিদিনের নদীজীবনের সুখ-দুঃখের গল্প নিয়ে এপর্বটি মানুষের মধ্যে নদীর প্রতি গভীর মমত্ববোধ তৈরি করবে বলে আশা করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানটির প্রযোজনায় রয়েছেন মামুন মাহমুদ।

event bd

0
0
0
s2smodern
powered by social2s

event bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bdevent bd

এসএ টিভি’র প্রতিদিনের মেগা ধারাবাহিক ‘তুমি আছো তাই’

0
0
0
s2smodern
powered by social2s

এসএ টেলিভিশনে ০৭ মে ২০১৭ রবিবার রাত ৮.০৫ মিনিট হতে শুরু হচ্ছে প্রতিদিনের মেগা ধারাবাহিক ‘তুমি আছো তাই’ এবং প্রতি সপ্তাহে রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৮.০৫ মিনিটে প্রচারিত হতে হবে এই মেগা ধারাবাহিকটি।

রচনা ও পরিচালনা: সন্দিপ চৌধুরী

অভিনয়: আশিক চৌধুরী, শর্মিলী আহমেদ, মাহমুদ সাজ্জাদ, সাবেরী আলম মোতাহের, ইলোরা গহর, মনিরা ইউসুফ মেমী, আব্দুল্লাহ রানা, মনির আহমেদ শাকিল, আনোয়ার হোসেন আনু, মাশিয়াত রহমান করিম, বিথী রানি সরকার প্রমুখ

গল্পের পটভূমিঃ

আজকের পুরুষ শাষিত সমাজে নারীদের অবস্থানটা কোথায় তা আমরা সকলে ভালো করে জানি। সংসার সুখের হয় রমনীর গুনে, এই স্ত্রাত্তবাক্যর আড়ালে তাদের জীবনের চাওয়া পাওয়াগুলো কে গলা টিপে মেরে ফেলা হয় তার খোঁজ ক’জন রাখে? নারী কখন মা হয়, কখন বোন বা দিদি হয় আবার কখনো স্ত্রী হয়ে যে আত্মত্যাগ করে থাকে, তা আমরা সহজে ভুলে যাই। ওরা মেয়ে, ওদের তো এটা করতেই হবে- এই যুক্তি দেওয়া হয়, আর সকলে তা মেনেও নেয়। কিন্তু তাদেরও কিছু স্বপ্ন থাকে, আশা থাকে, জীবন থেকে কিছু পাওয়ার আকাক্ষা থাকে। সেটা সত্যি হয় ক’জনের জীবনে?

আমাদের গল্পের একজন প্রধান চরিত্র একজন নারী। যে স্বপ্ন দেখে নিজের জীবন নিয়ে। রূপকথার মত যেন তার জীবনটা হবে, কোন সাত সমুদ্র তেরো নদীর পার থেকে পঙ্খীরাজ ঘোড়ায় চড়ে আসবে একরাজপুত্র যাকে দেখে প্রথম দর্শনেই প্রেমে পড়ে যাবে সে, আর তারপর তার দুই হাতের বন্ধনে পাবে সে অপরীসীম ভালোবাসা। তার রাজপুত্র তাকে নিজের করে, বিয়ে করে নিয়ে তুলবে তার রাজপ্রাসাদে আর সেখান দু’জনে সুখে জীবন কাটিয়ে দেবে। কিন্তু স্বপ্ন যে স্বপ্নই, তা সবার জীবনে সত্যি হয় না। স্বপ্নের রাজপ্রাসাদ থেকে বাস্তবের রাজপথে আছড়ে পড়তে যে বেশী সময় লাগে না। নারী, নারীই। তাকে তো তার নারীত্বের দায়ভার গ্রহন করতেই হবে। মুখ বুজে মেনে নিতে হবে তার ভবিষ্যতকে। ঠিক? না। সবাই না পারলেও কেউ কেউ পারে, প্রতিবাদ করতে। লড়াই করতে।

আসুন না, দেখি আমাদের গল্পের নারীরা তাদের স্বপ্নকে সত্যি করতে কতোটা লড়াই করতে পারে।

ই৭/আরএস